Logo

রোহিঙ্গাদের জন্য বরাদ্দের  টাকা গিলে খাচ্ছে এনজিওগুলো!

রোহিঙ্গাদের জন্য বরাদ্দের  টাকা গিলে খাচ্ছে এনজিওগুলো!

রোহিঙ্গাদের নিয়ে বাংলাদেশে কাজ করা বিদেশি সংস্থাগুলো গত ছয় মাসে ১৫০ কোটি টাকা হোটেল বিল দিয়েছে। তবে ভুক্তভোগী রোহিঙ্গাদের জন্য বরাদ্দের ২৫ শতাংশের বেশি ব্যয় করেনি এই সংস্থাগুলো। আইনশৃঙ্খলাবিষয়ক মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকের পর আজ বুধবার এসব তথ্য জানানো হয়। সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে বৈঠকটি হয়। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর নতুন গঠিত সরকারের আইনশৃঙ্খলাবিষয়ক মন্ত্রিসভা কমিটির আজ প্রথম বৈঠক হলো। আজকের বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কমিটির সভাপতি মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। সাংবাদিকদের তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের নিয়ে কাজ করা বিভিন্ন বিদেশি সংস্থা গত ছয় মাসে ১৫০ কোটি টাকা শুধু হোটেলের বিল দিয়েছে। কিন্তু ভুক্তভোগীদের জন্য বরাদ্দের ২৫ শতাংশের বেশি ব্যয় করেনি। মন্ত্রী বলেন, ‘বিষয়টি দুঃখজনক। এ বিষয়ে মন্ত্রিসভা কমিটি উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।’

মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গারা যেন মিয়ানমার থেকে আর না আসতে পারে, সে জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে বলা হয়েছে। ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের সরিয়ে নেওয়ার কাজ চলছে। আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, ভাসানচর এলাকাটি বসবাসের উপযুক্ত করা হয়েছে। রোহিঙ্গাদের কোথায় রাখা হবে, সেটা বাংলাদেশের সিদ্ধান্তের বিষয়। বিদেশিরা তাদের মানবিক দিকগুলো দেখবে। আমাদের বিষয়ে নাক গলানোর তাদের দরকার নেই। মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী বলেন, বর্তমান আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি আগের চেয়ে ভালো। আজকের বৈঠকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানসহ কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।