Logo

নাটোরে ১৫ জন নিহতের ঘটনায় বাসের হেলপার গ্রেফতার

নাটোরে ১৫ জন নিহতের ঘটনায় বাসের হেলপার গ্রেফতার

নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলায় একটি যাত্রীবাহী লেগুনার সঙ্গে চ্যালেঞ্জার পরিবহনের বাসের সংঘর্ষে ১৫ জন নিহতের ঘটনায় বাসটির হেলপারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

২৬ আগস্ট, রবিবার সন্ধ্যায় মামলার আসামি বাসচালকের সহকারী আবদুস সামাদকে গ্রেফতার করা হয়।

বগুড়া সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) সনাতন চক্রবর্তী জানান, রবিবার সন্ধ্যায় পলাশবাড়ি এলাকার ভাড়া বাসা থেকে বাসচালকের সহকারী আবদুস সামাদকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এর আগে নাটোরের বনপাড়া হাইওয়ে থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) ইউসুফ আলী বাদী হয়ে ২৫ আগস্ট, শনিবার রাতে দুর্ঘটনা কবলিত লেগুনার মালিক, চালক, সহকারী, লেগুনা মালিক সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং বাসের চালক ও মালিককে আসামি করে মামলা করেন।

গতকাল শনিবার বিকেলে নাটোরের লালপুর উপজেলা কদিমচিলান এলাকায় বাস-লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে ছয় নারী ও দুই শিশুসহ ১৫ জন নিহত হন।

নিহতরা হলেন- রজুফা (৪৬), শেফালী (৪০), লবেজান (৬০), আদরি বিশ্বাস (৩৫), প্রত্যয়(১২), স্বপ্না (১০মাস), রোকন (২২), শাপলা (২২), সুরাইয়া (১১মাস), আব্দুস সোবাহান (৭০), জহুরা খাতুন (৬০), লেগুনা চালক আব্দুর রহিম (১৮) ও সহকারী রাজা (২০)। অপর দুজনের নাম জানা যায়নি।