Logo

দল হেরে গেলে কারও পিঠের চামড়া থাকবে না - শেখ হাসিনা

দল হেরে গেলে কারও পিঠের চামড়া থাকবে না - শেখ হাসিনা

আগামী নির্বাচন খুব কঠিন ও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে।’৯১ সালের মতো গা ভাসিয়ে দেওয়া যাবে না। মনে রাখতে হবে, দল হেরে গেলে কারও পিঠের চামড়া থাকবে না।

গতকাল বুধবার গণভবনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাথে ‘সাক্ষাৎকার’ অনুষ্ঠানে শেখ হাসিনা নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে এসব কথা বলেন।

এ অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়া কয়েকজন মনোনয়নপ্রত্যাশীর সঙ্গে কথা হলে তাঁরা জানান, দল হারলে পরিণতি কী হবে, অতীতে দলের পরাজয়ে কী হয়েছিল তা আপনরা ভালো করে জানেন বলে বিষয়টি নিয়ে আমাদের বারবার সচেতনও করেন নেত্রী।

বৈঠকে উপস্থিত সূত্র জানায়, মনোনয়নবঞ্চিত হলেও দলীয় প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, অনেক জ্যেষ্ঠ নেতাও বাদ যেতে পারেন। এতে কিছু করার নেই। এটা মেনে নিতে হবে। একটা আসন হারিয়ে দিই, অন্যগুলোতে জিতবেই এমন করবেন না কেউ। এটা করলে দেখা যাবে ৩০০ আসনে দল হেরে গেছে।

বক্তব্যের শুরুতে সবাইকে স্বাগত জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যাঁরা মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন, সবাই যোগ্য প্রার্থী। কিন্তু এর মধ্য থেকে প্রতি আসনে একজনকে বেছে নিতে হবে। এরপরও সবার সঙ্গে কথা বলার আগ্রহ ছিল। কিন্তু এটা করতে গেলে তিন মাস লেগে যাবে। এ জন্যই সবাইকে একসঙ্গে ডেকে কথা বলার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। গণভবনে সবাইকে দুপুরের খাবারের আমন্ত্রণ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আবারও ক্ষমতায় এলে আপনারা এখানে আসবেন। মনোনয়নপ্রাপ্ত, বঞ্চিত এবং নির্বাচনে জয়ী সবার জন্যই উন্মুক্ত।

সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠানে মনোনয়নপ্রত্যাশীর সংখ্যা বেশি হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের শুধু বক্তব্য দেন। ফলে আগ্রহীরা কেউ বক্তব্য রাখার সুযোগ পাননি।