Logo

ঢাকায় হাই কমিশনে ‘চুরি’,  পাকিস্তানের প্রতিবাদ

ঢাকায় হাই কমিশনে ‘চুরি’,  পাকিস্তানের প্রতিবাদ

ঢাকায় পাকিস্তান হাই কমিশনে চুরির অভিযোগ তুলে ‘কড়া প্রতিবাদ’ জানিয়েছে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।  মঙ্গলবার একটি বিবৃতিতে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, কয়েকদিন আগে ঢাকায় তাদের হাই কমিশনের কনস্যুলার শাখায় ওই চুরির ঘটনা ঘটে। বিবৃতিতে বলা হয়,‘অজ্ঞাতপরিচয়’ চোরেরা সেখান থেকে কয়েকটি কম্পিউটার চুরি করে নিয়ে যায়। বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে বাংলাদেশ পুলিশকে জানিয়ে গুলশান থানায় একটি এজাহার দায়ের করা হয়েছে। বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কেও বিষয়টি জানিয়ে নিরাপত্তা জোরদার করতে বলা হয়েছে। বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, ইসলামাবাদে বাংলাদেশের হাই কমিশনার তারিক আহসানকে সোমবার ডেকে নিয়ে এ বিষয়ে একটি প্রতিবাদ লিপি দিয়েছে পাকিস্তান কর্তৃপক্ষ।  পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, কূটনীতিক পাড়ার কড়া নিরাপত্তার মধ্যে এ ধরনের চুরির ঘটনা ‘খুবই উদ্বেগজনক’। ঢাকা ও ইসলামাবাদে বাংলাদেশের কর্তৃপক্ষকে আমরা এর কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছি। এটা স্পষ্ট করে বলা হয়েছে যে, হোস্ট কান্ট্রি হিসেবে পাকিস্তান হাই কমিশনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা বাংলাদেশেরই দায়িত্ব। এ বিষয়ে পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করে তার প্রতিবেদন জানাতে এবং দোষীদের বিচারের মুখোমুখি করতে বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করেছে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এ বিষয়ে গুলশান থানার ওসি আবু বকর সিদ্দিক বলেন, গত বৃহস্পতিবার চুরির ওই ঘটনা ঘটে বলে পাকিস্তান হাই কমিশনের অভিযোগে বলা হয়েছে।  অভিযোগে বলা হয়, তিনজন চোর নিচতলার জানালা কেটে লাগানো শীতাতপ নিয়ন্ত্রত যন্ত্র খুলে ভেতরে ঢোকে। সেখান থেকে তারা একটি মনিটর, তিনটি পিসি, চারটি ইউপিএস এবং একটি শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ যন্ত্র নিয়ে যায়। রোববার অফিস খোলার পর চুরির ঘটনা ধরা পড়ে জানিয়ে ওসি বলেন, প্রথমে তারা বলেছিল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর থেকে রোববার সকালের মধ্যে কোনো এক সময় চুরি হয়েছে। কিন্তু পরে সিসি ক্যামেরার ফুটেজে দেখা যায়, চুরির ঘটনা ঘটেছে বৃহস্পতিবার রাতে। চুরির মালামাল রিকশা ভ্যান ও অটো রিকশায় করে নিয়ে যাওয়া হয়।