Logo

ডাকসু নির্বাচন বাতিলের দাবিতে আমরণ অনশনে ৪ প্রার্থী

ডাকসু নির্বাচন বাতিলের দাবিতে আমরণ অনশনে ৪ প্রার্থী

ডাকসু নির্বাচন বাতিলের দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে আমরণ অনশন কর্মসূচি শুরু করেছেন পরাজিত চার প্রার্থী।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে অনশন শুরু করেন তারা।

অনশনকারী প্রার্থীরা হলেন- ডাকসু নির্বাচনে শহীদুল্লাহ হল সংসদের সাহিত্য সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী শোয়েব মাহমুদ, মুহসিন হল সংসদের সংস্কৃতি সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী মো. মাঈন উদ্দিন, জগন্নাথ হল সংসদের সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী অনিন্দ্য মন্ডল, কেন্দ্রীয় সংসদের ছাত্র পরিবহন পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী তাওহীদ তানজীম।

অনিন্দ্য মন্ডল বলেন, ‘নির্বাচন সুষ্ঠু হয়নি। আমরা নির্বাচনের জন্য পুনঃতফসিলের দাবিতে অনশন শুরু করেছি। একইসঙ্গে আমাদের দাবি নির্বাচনে দায়িত্ব পালনকারী কর্মকর্তাদের পদত্যাগ করতে হবে।’

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আমাদের আশ্বাস না দেওয়া পর্যন্ত আমাদের আমরণ অনশন চলবে বলেও জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, সোমবার নানা অনিয়মের অভিযোগ এবং অধিকাংশ প্যানেল প্রার্থীদের ভোট বর্জনের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

এদিন সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে ভোটগ্রহণ শেষ হয় দুপুর ২টায়।

নির্বাচনে কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা নুরুল হক নুর ১১ হাজার ৬২ ভোট পেয়ে সহ-সভাপতি (ভিপি) নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছাত্রলীগ সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন পান ৯ হাজার ১২৯ ভোট।

এছাড়া নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক (জিএস) পদে জয়লাভ করেন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী। সহ-সাধারণ সম্পাদক (এজিএস) নির্বাচিত হন ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসাইন।

সোমবার দিবাগত রাত ৩টা ১৭ মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবন মিলনায়তনে ভোটের ফল ঘোষণা করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান।