Logo

কিডনিতে সমস্যা ও হৃদরোগ

কিডনিতে সমস্যা ও হৃদরোগ

কেস-১ : জনাব হক। অনেকদিন থেকে ডায়াবেটিস রোগে ভুগলেও নিয়মিত ওষুধ খান না, তাই রক্তের সুগার নিয়ন্ত্রণে নেই। কিছুদিন হল উচ্চরক্তচাপও ধরা পড়েছে। এখন নিয়মিত ওষুধ খেলেও ওষুধের মাত্রা দিন দিন বাড়ানোর পর উচ্চরক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে আসছে না। মাঝে মাঝেই মুখ ও পা ফুলে যাচ্ছে। কিডনি ফাংশন পরীক্ষায় রক্তের ক্রিয়েটিনিয়ের মাত্রা অনেক বেশি এবং প্রস্রাব দিয়ে প্রোটন বের হয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে তাকে উচ্চরক্তচাপ ও ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ ও প্রস্রাবের প্রোটিন কমানোর যথাযথ ওষুধ প্রদান করা হল।

কেস-২ : জনাব আলমের বয়স ৫২, ডায়াবেটিস ও উচ্চরক্তচাপের রোগী, ধূমপায়ী। ৬ মাস আগে তার পায়ে পানি আসলে ইকোকার্ডিওগ্রামে দেখা গেল হৃৎপিণ্ডের কার্যক্ষমতা অনেক কমে গেছে। তার এখন রক্তচাপ কম থাকে, রক্তের ক্রিয়েটিনিস বেশি থাকে এবং হৃৎপিণ্ডের কার্যক্ষমতা কমে যাওয়ায় কিডনিতে রক্ত সরবরাহ কম হওয়ায় কিডনিতেও সমস্যা হয়েছে।

কেস-৩ : মিসেস খাতুন, ৪২ বছর বয়স। পায়ে পানি এলে রক্তের ক্রিয়েটিনিন-এর মাত্রা বেশি পাওয়া গেল। ১০ দিন আগে হঠাৎ শ্বাসকষ্ট হলে বুকের এক্সরে ও ইকোকার্ডিওগ্রাম পরীক্ষায় হৃৎপিণ্ডের আকার স্বাভাবিকের চেয়ে বড় ও হৃৎপিণ্ডের চারপাশে পানি আছে দেখা যায়। এ পানি বিশেষ পদ্ধতিতে বের করে আনা হল। রোগী এখন ভালো আছেন।

কেস-৪ : মিসেস আক্তার, বয়স ৫০ বছর। পায়ের গিরা ব্যথা হওয়ায় স্থানীয় চিকিৎসকের পরামর্শে ব্যথার ওষুধ গত ১০ দিন ধরে খাচ্ছেন। হঠাৎ তিনি লক্ষ করলেন দুই পায়ে পানি এসেছে, ঘাড় ও মাথাব্যথা করছে। রক্তচাপ অনেক বেড়ে গেছে। কিডনি ফাংশন টেস্ট আগে ভালো থাকলেও এখন অনেক বেড়ে গেছে। গিরা ব্যথার ওষুধ খেয়ে তার এ সমস্যা হয়েছে।

অধ্যাপক ডা. মো. তৌফিকুর রহমান ফারুক

মেডিসিন ও হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ, মেডিনোভা মেডিকেল

মোবাইল : ০১৭৭৭৭৫১২৫১