Logo

এক কোটি লোক কিডনি জটিলতায় ভুগছে

এক কোটি লোক কিডনি জটিলতায় ভুগছে

বাংলাদেশে কিডনি রোগ প্রায় মহামারি আকারে দেখা দিচ্ছে। দেশের প্রায় ১ কোটি লোক কিডনি জটিলতায় ভুগছে। তার মধ্যে ৭০-৮০ লক্ষ লোকের ডায়ালাইসিস প্রয়োজন। কিন্তু দেশে মাত্র ১ লক্ষ ডায়ালাইসিস মেশিন রয়েছে। যা দিয়ে সর্বোচ্চ ১০ লক্ষ লোকের সেবা সম্ভব।

গতকাল শুক্রবার সিলেটে কিডনি চিকিত্সা বিষয়ে সাংবাদিকদের সাথে স্থানীয় একটি হোটেলে মতবিনিময় সভায় বিশিষ্ট কিডনি চিকিত্সকরা এসব কথা বলেন। তারা বলেন, এর চিকিত্সা করতে গিয়ে পরিবারগুলো দেউলিয়া হয়ে যায়। তারা তাদের আত্মীয়কে বাঁচিয়ে রাখতে সর্বস্ব দিয়ে চিকিত্সা করান। এই পরিস্থিতিতে মানুষ যেন সুলভ মূল্যে সঠিক সেবা পায় আর তা নিশ্চিত করতে চায় ‘কিডনি ফাউন্ডেশন সিলেট।’ সভায় সিলেট বাদাঘাট সড়কের কাছে ‘কিডনি হাসপাতাল’-এর জন্য জমি দান করায় জুববায়ের আহমদ চৌধুরীকে ধন্যবাদ জানানো হয়। এ সময় জানানো হয়, হাসপাতালটির ডিজাইন সম্পূর্ণ হয়েছে। জুনের মধ্যে অনুমোদন হয়ে গেলে, এ বছরের শেষে নির্মাণ কাজ শুরু হবে।

সভায় প্রখ্যাত নেফ্রোলজিস্ট যুক্তরাষ্ট্রের ড্রেকসেল ইউনিভার্সিটির নেফ্রোলজির প্রফেসর ও কিডনি ফাউন্ডেশন সিলেটের প্রেসিডেন্ট ডা. জিয়াউদ্দিন আহমদ বলেন, যদিও নাম কিডনি হাসপাতাল, কিন্তু ক্যান্সার, হূদরোগ, লিভার সিরোসিসসহ সকল রোগের চিকিত্সা হবে। এছাড়া বক্তব্য রাখেন কিডনি ফাউন্ডেশন সিলেটের সচিব কর্নেল (অবঃ) আব্দুস সালাম, কোষাধ্যক্ষ জুবায়ের আহমদ চৌধুরী, সদস্য ডা. শাহ জামান চৌধুরী বাহার প্রমুখ। এদিকে শুক্রবার দিনব্যাপী নগরীর উপ শহরস্থ কিডনি ফাউন্ডেশনে বিনামূল্যে ৩ শতাধিক রোগীকে স্ুলভ মূল্যে চিকিত্সা প্রদান করা হয়। চিকিত্সা দেন নিউইয়র্ক মেডিক্যাল কলেজের চেয়ারম্যান ইউরোলজিস্ট প্রফেসর মোহাম্মদ চৌধুরী, বাংলাদেশ কিডনি ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি প্রফেসর হারুন উর রশীদ ও সেক্রেটারি জেনারেল প্রফেসর এম. মুহিবুর রহমান এবং ফাউন্ডেশনের এমডি, টিনি ফেরদৌস রশীদ, ডা. নাজমুস সাকিব, সিলেট কিডনি ফাউন্ডেশনের এক্সিকিউটিভ ডা. হাজী মুশফিক আহমদ ডা.সামিয়া চৌধুরী, এক্সিকিউটিভ কো-অর্ডিনেটর ফরিদা নাসরীন প্রমুখ।

আজ সিলেট রোজ ভিউ হোটেলে দিনব্যাপী কিডনি বিষয়ে সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে। এতে দেশ-বিদেশের প্রখ্যাত কিডনি বিশেষজ্ঞরা উপস্থিত থাকবেন।